স্বদেশ সন্ধানী মন আমার

স্বদেশের সোঁদা মাটির সুবাস পেয়ে যাই মাঝে মাঝে বিদেশী পারফিউমের সুগন্ধে মেঠো পথের আভাসও পাই প্রায়শই আমি আজকাল রাত-জাগা শহরের নিজস্ব ছন্দে । রমনা পার্কের পাশের সেই পরিচিত ফুচকাওয়ালা আর জ্যাকসান হাইটস’এর ফুচকা-বিক্রেতা একই সত্বা[…]

স্বপ্নের কাছি

না হয় জমাট মেঘ হয়েই এলে ধূসর এই আকাশে আমার তারপর বৃষ্টিতে সৃষ্টি হবে জানি শব্দমুখী এক গুচ্ছ কবিতার। অথবা আসতে পারো ভোরের আলো হয়েই অন্ধকারের বন্ধ দ্বার খুলে শিশির-ভেজা ঘাসেরা হবে সজীব আরো বাগান[…]

মৃত্যু

সেই দেয়ালের দিকে হাঁটছি আজন্ম হাঁটি হাঁটি পা পা করে নয় এখন আর দ্রুতযানের একনিষ্ঠ এক আরোহী আমি প্রিয় পরিচিত প্রকৃত ও প্রেমেরা পেছনে সরছে ক্রমশই সেলুলয়েডের পর্দার মতো দৃশ্যগুলো দ্রুতই ধাবমান যতটা এগুচ্ছে আমার[…]

….এবং অতএব কবিতাই তুমি

অংকের হিসেব মেলাতে পারিনে আজকাল কবিতে কবিতায় সমীকরণ পেয়ে যাই অনবরত যে ছিল কবি একদা আমার পরিচয়ে অকস্মাৎ দেখি সেই-ই তো হয়ে গেল কবিতা আমার । পুরোনো ডায়েরির পাতায় লেখা শব্দরা সব এখন দেখি হেঁটে[…]

কৈশোরিক প্রেমের কথকতা

একদা এক চিলতে উঠোনে আমার চিরকুটে তোমার ফুটেছিল ফুল প্রথম প্রেমের মুকুল বলেই বোঝেনি তোমার কিশোরী মন। জ্যামিতির কঠিন উপপাদ্যের পাতার ভাজে এ কী উপহার প্রাপ্তি তখনও বোঝেনি চিলতে উঠোনে যে সলতে জ্বালাবে পদ্ম-প্রেমের। সঙ্কোচে[…]

আশার নিরাশা

সারাটা দিন আকাশে জমাট মেঘ আশা ছিল নামবে বৃষ্টি কই বৃষ্টিতো নামলো না। সারাটা দিন রেল লাইন ধরে চললো গাড়ি আশা ছিল থামবে ট্রেন কই ট্রেনতো আর থামলো না। সারাটি দিন বাগানে আমার একটি ফুলের[…]

নাই-ই বা …

ঝুম বৃষ্টিতে নাই-ই বা ভেজালে মন আমার পশলা বৃষ্টি হয়ে এসো মরু মনে। খরতাপে নাই-ই বা যোগালে উত্তাপ আমায় হাল্কা রোদের উষ্ণতা নিয়ে এসো বনে। প্রস্ফুটিত গোলাপের সুবাস নাই-ই বা ছড়ালে উঠোনে আমার কুসুম-কলিতে সম্ভাবনা[…]

হৃদয়ের কথা

কাঠবিড়ালি মন নিয়ে এতো ছুটোছুটি এ-গাছ থেকে ও-গাছ, কিংবা এ-ডাল থেকে ও-ডাল তাতে কতটুকু শান্তিই বা খুঁজে পাও খাদ্যের সন্ধানে না হয় নিত্যই ভাসাও নাও তাতে উদর-পূর্তি হবে বেশ ফুর্তিতেই কিন্তু হৃদয় ভরানোর আশ্বাস কোথায়[…]

The Past & the Future

Lost in the Riddle of Time I often get confused. I would have rather preferred A timeless globe In a flawless flow Where the time knows no bound Nor the humanity. Where we all are[…]

শুরু, নাকি শেষ !

কাহিনীটা প্রায় একই রকম প্রতিবছর আবার ঐ টাইম স্কোয়ারে বছরের বলটা পড়বে আর তখনই তাবৎ লোকজন সুরার গেলাস তুলে চিয়ার্স বলে উল্লাসে পড়বে ফেটে । উচ্চ সুরে কিংবা বেসুরে ধরবে গানের রব যন্ত্রের যন্ত্রনায় হারাবে[…]