হৈমন্তি পাতা: তুমি এবং আমি

ঝরে পড়বে যে পাতা অচিরেই

হেমন্তের সেই হলদে পাতা দেখে

দেখি মুগ্ধতা তোমার চিরল চোখে

হতবাক হয়ে যাই মাঝে মাঝে

সেই হলদে পাতাদেরও ক্ষণিক আস্ফালন দেখে।

গৌরব নয় তেমন, যেমন গর্বে ফোলায় বুক

পাতা-ঝরার সময়টাতে পাতারাইতো সব।

আর বিশ্বের তাবত্ বোকা মানুষেরা বরাবর

হলদে পাতাদের দেখে সোচ্চার হয়ে ওঠে সানন্দে

আবার খানিক পরেই তারাই দেখি মাড়ায় পতিত পাতা ।

শুকনো রুটির মতো পাতারা থাকে পড়ে

প্রায় শূণ্য থালায় তোমার

হৃদয়ের উদর পূর্তি হবে না তাতে

সে কথা জানি আমি, জানো তুমিও আমি জানি।

তবু পীত বর্ণ ঐ পাতার প্রতি প্রেম যেন প্রাত্যহিক।

ইদানিং ঐ  ঝরা-পাতার আদলে দেখি

নিজের ক্রমশ ক্ষয়িষ্ণু অস্তিত্বকে

ঝরে পড়া পাকা চুলগুলো যেন হেমন্তের পাতা

মাড়িয়ে যায় কখনও সখনও কেউ কেউ হয়ত

একেবারে নিঃশব্দ চরণে।

বড় হিংসে হয় হলদে পাতাদের দেখে

ভালোবাসায় ভেজাও তাদের সকাল সন্ধ্যে।

আগ্রহ নিয়ে তুলে নাও পতিত কোন পাতা

পাতাতো নয় পত্র যেন প্রেমের

প্রান্তিক থেকে যাই-ই আমি পান্তা অস্তিত্ব নিয়ে।

বড় ঈর্ষে হয় আজকাল হেমন্তের কোন হিমেল পাতাকে

প্রেমহীন অস্তিত্ব নিয়ে আমি ভরাই কেবল কবিতার খাতাকে।

১০ই নভেম্বর ২০২১, ম্যারিল্যান্ড  

Copyright@anisahmed

Comments

Leave a Reply