অরিন্দমের তানপুরা

অরিন্দমের তানপুরাটায় ধূলো জমছে প্রতিনয়ত
সেই যে একদা কৈশোরে কিনেছিল
সঙ্গীতের ইঙ্গিতবাহী এই যন্ত্রখানি
মন্ত্রমুগ্ধের মতো শুনেছিল সুরের মূর্চ্ছনা বার বার
তবু কখনও সঙ্গত হয়নি নিজ কন্ঠ তার।

প্রাগৈতিহাসিক পাথর ঘষে প্রেমের আগুন
যতবার গেছে জ্বালাতে অরণি
ততবারই নিভেছে সে শিখাখানি
ধোঁয়ায় ধূসর হয়েছে তার প্রেমের প্রাঙ্গন
শাখায় শাখায় কেবল শুনেছে পাখিদের গুঞ্জন ।

আজ আবার ধুলো ঝেড়ে বসেছে অরিন্দম
তানপুরাটার তারে বুলাচ্ছে আঙুল ক্রমাগতই
কষ্টের সুরে নষ্ট হয়েছে ভ্রষ্ট সময়রা সব
তবু ঐ তো দেখি অরণিও আজ জ্বালালো আগুন
কুঁচি বরফেরা গলছে দেখি, এসে গেলো সেই ফাগুন।

মিলনের শিখায় ভষ্ম হবে সব বিরহ-ব্যথা
অরণিই হয়ে যাবে তানপুরারই তার তখন
অরিন্দমের সুক্ষ স্পর্শে সুরেরা উঠবে বেজে
অরণি তখন সঙ্গীত হবে,হবে সুরেলা ভালবাসা
অরিন্দমের ধুসর মনে জাগবে নতুন আশা

১২ই ফেব্রুয়ারি ,২০২১ ম্যারিল্যান্ড
Copyright@anisahmed

Comments

Leave a Reply