কেবল কবিতার অরিন্দম

এমন অনাবিল আনন্দে উদ্ভাসিত হয়নি অরিন্দম কখনও
কবিতার কন্ঠ থেকে বেরিয়ে আসা শিশির-শব্দরা সব
এমন ভাবে ভেজায়নি কেউ তার মরু-মনের বিস্তৃত আঙ্গিনা
সৌভাগ্যের সোনালী আলোয় এমন স্নান করেনি বহুদিন
আজ তাই আলো ও শিশিরের সঙ্গমে সে সঙ্গী খুঁজে পায়
পুষ্পিত প্রাণের কবিতা এখন পেখম মেলে নববর্ষার জলে ।
ভেজার ভেজানোর এই সুক্ষ সুখ থেকে বহুকাল বঞ্চিত অরিন্দম
এখন নিমজ্জিত কবিতার সুবাসিত শরীরের ভাঁজে ভাঁজে ।

খোঁজে কবিতা অপরিসীম অসীমতা বিমূর্ত এক অনুভূতিতে
সীমার বাঁধনে বরাবর বিচলিত মূর্তমান সত্যরা অরিন্দমের
কবিতাতেই পায় মুক্তোর মতো মুক্তির এক অনাস্বাদিত সত্য
মূল্য তার অমূল্য অঙ্কে হিসেব করে অরিন্দম, অবশিষ্ট সব
শুভকঙ্করের ফাঁকির ফাঁক রেখে যায় সম্পর্কের যত্রতত্র।
সকাল-সন্ধ্যা কবিতার সাথে সখ্য হওয়ায় ঈর্ষান্বিত আগাছারা সব
বনমোরগের ডাকে ঢেকে যায় মাঝে মধ্যে কোকিলার সুমিষ্ট সুর
অরিন্দম তবু কবিতা ও কোকিলার মধ্যে সমীকরণ আঁকে নিরন্তর

নিষ্ঠ এক গানিতিকের মতো এঁকে যায় সুর ও শব্দের মিলনের কথা
আনন্দের ফুলঝুরিতে হারায় এখন সঞ্চিত-সম্প্রসারিত সকল ব্যথা।

ম্যারিলান্ড , ৩ রা মে , ২০১৬
Copyright@ anis ahmed

Comments

Leave a Reply