বনের কাশ,মনের আকাশ

কবিতার খাতা কি গিয়েছিল খোয়া
নাকি দোয়াতের কালি ফুরোলো অকস্মাত্
যে ঝর্ণা কলম খর রৌদ্র-তাপে
খটখটে খড়ের মতো মেদহীন
পড়ে থাকে মনের গভীর গোপনে।
অতঃপর শারদ রাতে, এবং প্রাতেও
বৃষ্টি নামলো শুকনো আঙিনায় আমার
হঠাত্ ভেজালো অনুভূতির শুকনো শেকড়।

ভরা-বর্ষায়ও ভিজিনি এমন দূর্দান্ত
যেমনটি ভেজালে আজ অবিরল ধারায়
এখনতো শীত আসি আসি করছে
তবু হাল্কা হিমেল হাওয়ায় উড়ালে তোমার
কয়েকগুচ্ছ চুল, ঐ কাশ-বাগানের মধ্যখানে
আমি ছিলাম এতদিন অচল এক বাঁশবাগানে
স্থবিরতার থাম ধরে, ঝরাতাম ফোঁটা ফোঁটা ঘাম
অথবা কল্পনার বুদবুদে বুঁদ হয়ে থাকা অবিরাম।

আজ বড্ড ইচ্ছে করছে কাশের গুচ্ছ হতে
ওই আঙ্গুলের তিরতিরে পরশে পেতে শিহরণ
হয়ত তোমার খোলা চুল হাওয়ায় জড়াতো
এবং ওই কাশবনেই মনের আকাশে হারাতো
কিংবা তোমার ঈষ্ত্ বাঁকানো শরীর
ছুঁয়ে যেতো আমার কাশ-মনের ফোটা ফুল ।
শাড়ির আঁচলে জমতো হাল্কা কিছু রেণু
টোকা দিয়ে ফেলতে জানি অযাচিত অতিথীকে ।

জানি তোমার কাছে যেতে মনের এ কাশের গুচ্ছ
কাক হয়ে কল্পনায় নাড়ায় কোন এক ময়ুর পুচ্ছ।

৯ই অক্টোবর ২০২০, ম্যারিল্যান্ড
Copyright@anisahmed

Comments

Leave a Reply