থাকা না থাকার থোক বেদনা

নিমগ্ন থাকো নিত্যই জানি আমি নিমগ্নতার স্বরূপ পাই না খুঁজে তৎক্ষণাৎ বেদনা বিভোরে একী হারিয়ে থাকা তোমার; নাকি সুখের সাগরে প্রাত্যহিক সাঁতার কাটা? উৎসবে আয়োজনে বরাবর যাওয়া-আসা অথচ উপস্থিতিতেই যেন অনুপস্থিত থেকে যাওয়া শরীর থেকে[…]

বৃষ্টির কাছে অনুভব

শ্রাবণ মেঘের প্রায় নিরন্তর অশ্রুই হয়ে ওঠে তোমার আনন্দের অনাবিল উৎস। অবিরত সে্ই বারিধারার কোমল স্পর্শে ক্রমশই জেগে ওঠে ঐ মন , যাকে খোঁজো চৈত্রের অমন চিত্ত ঝলসানো রোদেলা দুপুরে । হরিণীর মতো এমন শশব্যস্ত[…]

কবিতার সংজ্ঞা

রবীন্দ্রনাথ কিংবা জীবনানন্দ নজরুল সুকান্তও এবং শামসুর রাহমানরা আজকাল অহরহ স্থান পান রঙিন শাড়ির আঁচলে পাঞ্জাবির বুক পকেট থেকে বেরিয়ে তাঁরা চলে আসেন , বাইরে , ফতুয়ার নক্সা হন নির্নিমেষেই । কবিতার এই বাহ্যিক অবস্থানে[…]

এসো বৃত্তের বাইরে

বিষন্নতার বৃত্ত বাড়াও জীবনের জ্যামিতিতে মেঘের আড়ালে লুকাও, আলোর বিন্দুগুলো বৃত্তের বাইরে বেরিয়ে এসো বলি যতবার ততবারই শামুকে আবৃত রাখো কোমল সত্বাটুকু। কষ্টরা সব তোমারই আস্কারায় , মস্করা করে তোমাকেই নিয়ে তুমিই অথচ পুষে রাখো[…]

প্রতীক্ষা অন্তহীন

প্রতীক্ষার প্রদীপ জ্বেলে বসে থাকি প্রত্যহই ইচ্ছে করে আনন্দের পেখম মেলি বৃষ্টি নামলেই চাতকের চিত্ত নিয়ে নিত্যই অপেক্ষা অন্তহীন বৃষ্টিতো ঝুলে থাকে মেঘ হয়ে নাগালের বাইরে কিঞ্চিৎ কদাচিৎ বিদ্যুতের অদ্ভূত ঝলকানি সেইটুকু আশার আলো, বাকিটা[…]

কবিতার কথা; কবিতায় কথা

অনুরাগের অনুরণন তুলে কবিতা বললো সেদিন, “তোমাকে ছাড়া বড্ড প্রাণহীন লাগে আমার” এ বড় পক্ষপাতি কথা, তোমার প্রিয়তমা কবিতা বড়ই একদেশদর্শী হয়ে পড়েছো, তুমি আজকাল। তোমার আকাশজুড়ে রয়েছে গর্ভবতী মেঘ উঠোন জুড়ে আছে সম্ভাবনার নানা[…]

কেবল কবিতার অরিন্দম

এমন অনাবিল আনন্দে উদ্ভাসিত হয়নি অরিন্দম কখনও কবিতার কন্ঠ থেকে বেরিয়ে আসা শিশির-শব্দরা সব এমন ভাবে ভেজায়নি কেউ তার মরু-মনের বিস্তৃত আঙ্গিনা সৌভাগ্যের সোনালী আলোয় এমন স্নান করেনি বহুদিন আজ তাই আলো ও শিশিরের সঙ্গমে[…]